প্রেম ভাবনা

একটা সময় ছিলো যখন তোমায় আমি অনেক ভালোবেসে ছিলাম, দুচোখ বুজলে শুধু তোমার হাসি মুখ দেখতে পেতাম। আমার বর্তমান বা ভবিষ্যৎ সবখানেই আমি ফুলদানির মতো তোমাকে সাজাতাম। তোমার কথা ভাবতেই হৃদয় আমার শীতল হতো ভালোবাসার পবিত্র অনুভূতিতে। দিনরাত শুধু তোমার হাসি মুখ দেখতে ইচ্ছে করতো, ভালো লাগতো শুনতে তোমার কথা।
তোমার প্রতি অনুভব করতাম হৃদয় ভরা ভালোবাসা। আমার সে ভালোবাসায় কোন খাদ ছিল না, ছিল পবিত্রতা, বিশুদ্ধতা। তখন আমার হৃদয় ভরা ভালোবাসা ছিল সত্যি, কিন্তু আমার পায়ের তলায় মাটি ছিল না, ছিলো না মাথা গোজার ঠাঁই, আমি ছিলাম ভিটেমাটিহীন যাযাবর।

আচমকা একদিন, আবিষ্কার করেছিলাম, তুমি অন্য কারো।
জানার পর কষ্ট পেয়েছিলাম, কিন্তু তোমাকে আমি দোষ দেয়নি কখনো, কারণ তোমাকে পাওয়ার মতো বাস্তবতা আমার ছিল না। আয়নায় দাঁড়িয়ে নিজেকে সান্তনা দিতাম, এই বলে - "তুমি ঠিকই করেছো, যে পৃথিবীতে আমার নিজেরই মাথা গোঁজার ঠাঁই নাই, সে পৃথিবীতে তুমি এলে তোমায় রাখতাম কোথায়, বলো?"

এরপর ধীরে ধীরে আমার কাদামাটির গড়া হৃদয় আগুনে পুড়ে শক্ত হয়ে যায়। পোড়ামাটির বাসন যেমন পানিতে ভিজিয়ে রাখলেও পূর্বের কাদা মাটির রূপে ফিরে আসে না, তেমনি চাইলেও অনেক কিছুই আর আগের অবস্থানে ফিরিয়ে নেয়া সম্ভব নয়। তাই সময় এবং বাস্তবতাকে মেনে নেয়াই যুক্তিযুক্ত।

Comments

Popular posts from this blog

Mitt identitet

স্ভালবার Svalbard

কথার কথা - ১