Posts

ব্যাঙ্কিং সেবা

Image
সময়ের সাথে সব কিছু বদলে যাচ্ছে, বদলে যাচ্ছে জীবন যাত্রার মানএবং ধরণ। একটা সময় বিদ্যুৎ বা টেলিফোন দেয়ার জন্য লোকজন ব্যাংকে গিয়ে লম্বা লাইনে দাঁড়াতো।
এরপর যখন অনলাইন ব্যাংকিংয়ের যুগ শুরু হলো তখন লোকজন ব্যাংকে গিয়ে লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে বিল পরিশোধ করার বদলে ঘরে বসেই কম্পিউটারে করতে লাগলো। এখন সবার হাতে হাতে ইন্টারনেট সংযুক্ত স্মার্ট ফোন। বর্তমানে ডেস্কটপ থেকে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর তুলনায় মোবাইল থেকে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা বেশি আর এই কারণেই ব্যাংকগুলো অনলাইন ব্যাঙ্ক থেকে স্মার্টব্যাংকে রূপ নিয়েছে। ব্যাংকের মোবাইল এপপ্স চালু করে মোবাইলের ক্যামেরায় বিলপেপারের ছবি তুললেই প্রাপকের ব্যাঙ্ক নম্বর এবং টাকার পরিমান সহ বিস্তারিত তথ্য এপপ্সটি আপনা আপনি পূরণ করে নেয়। আমার কাজ শুধু পাসওয়ার্ড প্রবেশ করিয়ে ওকে বাটনে ক্লিক করা। ব্যাস বিদ্যুৎ বা টেলিফোন বিল পরিশোধ  করার কাজ শেষ।

আজ প্রথম বারের মত স্মার্ট ব্যাঙ্কিং সেবার অভিজ্ঞতা অর্জন করলাম। 


The story of a Bengali

Image
When my grandparents were born.
By born they were British Indian citizen.
Because on this time our part of Bengal was part of India,
and India was the colony of Britain.

When my parents were born.
By born they were the Pakistani citizen.
Because on the time our part of Bengal was united with Pakistan,
and separated from India.
and the colony of Pakistan.

When I was born, by born I was a Bangladeshi citizen.
Because at the time we were independent.
This is a story of my generation who born in Bangladesh.

Maybe our next generation will extend the story,
and will tell you the untold part of the story and continue.

Arifur Rahman
Drøbak, Norway

Bengali: 
আমার দাদা-দাদী যখন জন্মগ্রহণ করেছিলেন,
তখন জন্মসূত্রে তারা ছিলেন ব্রিটিশ ভারতীয় নাগরিক।
কারণ সে সময়ে আমাদের বঙ্গভূমি ভারতের অংশ ছিল,
আর ভারত তখন ব্রিটেনের উপনিবেশ ছিল।


আমার বাবা-মা যখন জন্মগ্রহণ করেছিলেন,
তখন জন্মসূত্রে তারা ছিলেন পাকিস্তানি নাগরিক।
কারণ সে সময়ে আমাদের বঙ্গভূমি পাকিস্তানের অংশ ছিল,
এবং আমরা তখন পাকিস্তানের উপনিবেশ ছিলাম।


ফেসবুক ভেরিফাইড একাউন্ট

Image
যথারীতি রাত জেগে আমার প্রকল্প নিয়ে কাজ করে রাত ৩টার দিকে ঘুমিয়ে পড়েছিলাম। সকালে  সাড়ে দশটার দিকে এলার্মের শব্দে ঘুম ভেঙে গেলো।  ঘুম ঘুম চোখে মোবাইল হাতে নিয়ে ইমেইল চেক করতে করতে দেখি ফেসবুক থেকে ইমেইল এসেছে।  ইমেইলে লেখা আছে আপনার প্রোফাইল ফেসবুক কতৃক ভেরিফাইড করা হয়েছে,  এখন থেকে আপনার ফেসবুক প্রোফাইলের নামের পাশে নীল ব্যাজ প্রদর্শিত হবে। আপনি ভেরিফাইড ফেসবুক একাউন্ট না চাইলে 'সাবমিট এ রিকুয়েস্ট' লিংকে ক্লিক করতে বলেছে। নিরাপত্তা জনিত কারণে, আমি সাধারণত ইমেইলে পাওয়া কোনো লিংকে ক্লিক করি না।  কখনো কখনো স্প্যামার বা হ্যাকার ইমেইলে লিংক পাঠিয়ে ক্লিক করতে বলে। যেমন এর আগে একবার ফেসবুকের মতোই ব্র্যান্ডেড ইমেইলে লিংক পাঠিয়ে লিখেছে আপনার একাউন্ট ঝুঁকিপূর্ণ এক্ষুনি পাসওয়ার্ড  পরিবর্তন করুন। আমি লিংকে ক্লিক করতেই একটা সাইট ওপেন হলো, যেটার লগইন পেজ দেখতে অবিকল ফেসবুকের লগইন পেজের মতো, একটা ঘরে পুরাতন পাসওয়ার্ড চেয়েছে অন্য ঘরে নতুন পাসওয়ার্ড দিতে বলেছে, ইউআরএল-এর দিকে খেলাল করেই বুঝলাম এটি ফেসবুক নয়, এটি একটি ফাঁদ, সঙ্গে সঙ্গে আমি সাইটটি ত্যাগ করলাম।  এই রকম আরো বেশ কয়েকবার হ্যাকারর…

টুনস ম্যাগে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

Image
টুনস ম্যাগের নবম বর্ষপূর্তিকে উপলক্ষ্যে নতুন সংস্করণের কাজ চলছে। লোগো পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে সাইটের ফিচারে নতুনত্ব থাকছে, সেই সাথে থাকছে তথ্যের গভীরতা।
 নতুন বছরে সংক্ষিপ্ত নীতিবাক্য; it's time to change.

 বিভিন্ন CMS নিয়ে কাজ করেছেন, HTML, CSS-এ পারদর্শী, ইংরেজী ভাষা শুদ্ধভাবে লিখতে পড়তে পাড়েন এমন এক জনকে খন্ডকালীন Content Managmant কাজের জন্য নিয়োগ দেয়া হবে। যোগ্য এবং আগ্রহীরা ইনবক্সে যোগাযোগ করতে পারেন, কোন প্রশ্ন থেকে থাকলে সেটাও জানাতে পারেন। ইমেইল করতে পারেন এই ঠিকানায়: post@toonsmag.com বেতন আলোচনা সাপেক্ষ্য।

 উল্লেখ্য; টুনস ম্যাগ একটি অনলাইন কার্টুন ম্যাগাজিন। বর্তমানে পাঁচটি ভাষায় প্রকাশিত হচ্ছে। বাংলাদেশী কার্টুনিস্ট আরিফুর রহমান টুনস ম্যাগের প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রকাশক। প্রতি বছর বিভিন্ন বিষয়ে আন্তর্জাতিক কার্টুন প্রতিযোগীতা ও প্রদর্শনীর আয়োজন করে আসছে, সেই সাথে বিভিন্ন দেশের আন্তর্জাতিক কার্টুন প্রতিযোগীতা এবং প্রদর্শনীর পৃষ্ঠপোষকতা করে চলছে। “কার্টুনিস্ট অফ দ্যা ইয়ার” পদক প্রতি বছর টুনস ম্যাগ প্রদান করে থাকে। প্রতি মাসে ১৪০+ দেশ থেকে টুনস ম্যাগ পড়া হয়ে থাকে।…

17 awesome quotes that help me to stay motivated

Image
The road to your dreams isn’t always easy to navigate, sometimes dotted with mountains to climb, obstacles to overcome—and hard, mind-numbing times that will make you feel like quitting. Just remember this if you get lost along the way: Anything worth having doesn’t come easy. So don’t turn back around. Don’t give up.

As you work to achieve your most ambitious goals, push yourself to keep moving forward with these 17 motivational quotes.

1. “Believe in yourself! Have faith in your abilities! Without a humble but reasonable confidence in your own powers, you cannot be successful or happy.” —Norman Vincent Peale
 2. “If you can dream it, you can do it.” —Walt Disney
3. “Where there is a will, there is a way. If there is a chance in a million that you can do something, anything, to keep what you want from ending, do it. Pry the door open or, if need be, wedge your foot in that door and keep it open.” —Pauline Kael
4. “Do not wait; the time will never be ‘just right.’ Start where you sta…

অনুকরণীয় অনুসরণীয়

সকলেই অনুকরণীয় হয় না।  মানুষ সবাইকে অনুকরণ বা অনুসরণ করে না। অনুকরণীয় বা অনুসরণীয় হবার মতো যোগ্যতা বা গুণাবলী রয়েছে মানুষ কেবল তাদেরকেই অনুসরণ করে। 

বাল্যকালে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সৃজনশীল, শৈল্পিক গুণাবলী সমূহ আমাকে মুগ্ধ, অনুপ্রাণিত এবং প্রভাবিত করেছিল।
শব্দে শব্দ গেঁথে কবিতা লিখতে শুরু করেছিলাম, কিছু গল্প লিখেছিলাম, যদিও এ সকলই বাল্যকালের কথা, পাণ্ডুলিপি গুলো হারিয়ে গেছে সেই কবে কালের স্রোতে।  রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের হাতে আঁকা ছবি দেখে প্রথম উপলব্ধি করেছিলাম ছবি আঁকা খুব সোজা, ছবি আঁকায় ভুল বলে কিছু নাই। 
তবে আমি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে অনুকরণ বা অনুসরণ করিনি, আমি শুধু তার মতো সৃজনশীল গুণাবলী সমূহ আত্মস্থ করার চেষ্টা করেছিলাম যা আমায় মুগ্ধ করেছিল। আমিও ছবি আঁকি, আমিও কবিতা লিখি এর মানে আমি তাকে অনুকরণ বা অনুসরণ করি।  আমি নিশ্চিত বলতে পারি আমার মতো আরো অনেকেই আছে যারা রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সৃজনশীল গুণাবলীর দ্বারা প্রভাবিত। 
আমার আঁকা ছবি, আমার কবিতা বা লেখা আমার ভাবনা আর চিন্তা চেতনা আমার মত করে আমার ভাষায় প্রকাশ করি এটাই আমার মৌলিকত্ব। 

বাল্যকালে মোনালিসা পেইন্টিংটাকে একটা স্থির আলোকচিত্র ভাবতাম। ক…

মুহূর্তের আলিঙ্গনে

বছর খানেকের তরে আমি ভুলে যেতে চাই,
কে আমি, কোথায় ছিলাম, কোথায় এলাম,
কি হারালাম, কি পেলাম,
কোনটা নামি, কোনটা দামি। 

উদাসীন আমি, ভাবনা ছিল কম জীবন, ভবিষৎ প্রসঙ্গে
অল্পতেই ছিলাম তুষ্ট, সন্তুষ্ট।
চলতাম সময় স্রোতে বেহুঁশে গা ভাসিয়ে। 
ঋতুর পরে ঋতু এসে চলে গেছে, আমি থেকেছি
সকল প্রহরে একই ঘরে, একই তরে, বেখেয়ালিতে।
বিচ্ছিন্ন ছিলাম, ছিলাম বাস্তবতা থেকে অনেক দূরে।
ছিলাম আমার পথে একা,
অচেনা সে পথে বসন্ত দেয়নি দেখা।
হিমেল হাওয়া দিয়েছে দোলা,
নিযুত বছর ধরে যেভাবে দিয়ে চলেছে
সবার চুলে, সবার গালে। 

যে মুহূর্ত চলে গেছে সে তো আর আসবে না ,
হয়তো আসবে নতুন মুহূর্ত, হয়তো সেটি হবে উত্তম
অথবা অন্য রকম।
আমি প্রস্তুত নতুন মুহূর্তকে আলিঙ্গন করতে।