আদিবাসীদের জন্য

একটি নরোয়েজিয় দাতব্য সংস্থা'র পক্ষ থেকে তাদের আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে আমাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিল। এবং আমি তাদের আমন্ত্রণে সারা দিয়ে সেখানে উপস্থিত হয়েছিলাম গতকাল। তাদের আয়োজন দেখে আমি মুগ্ধ-অবিভূত। সেখানে তারা শিশু-কিশোর থেকে প্রাপ্তবয়স্কদের দৌড়ের আয়োজন করেছিল। দৌড়ে যারা অংশগ্রহন করেছিলেন তাদের সকলের-ই পৃষ্ঠপোষক আছেন। এই দৌড়ের বিশেষত্ব হলো যে যত দৌড়াবে তাদের পৃষ্ঠপোষকগনের কাছ থেকে সে তত টাকা পাবে। আর তাদের অর্জিত সকল টাকা একত্র করে বাংলাদেশের আদিবাসী জনগোষ্ঠির শিক্ষা ও চিকিত্সাখাতে ব্যয় করবে। অনেক লোক সমাগম হয়েছিল, অনুষ্ঠানে আমি একটি বক্তৃতা দিয়েছিলাম।
আমি মনে করি আমাদের দেশের আদিবাসীদের জন্য এটি একটি মহতি উদ্যোগ। আমি তাদের এইরূপ উদ্যোগ ও আন্তরিকতা দেখে আমি মুগ্ধ, আর এই কারণেই একজন বাংলাদেশী হিসেবে আমি তাদেরকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন সহ প্রসংসা করেছি। একই সাথে আমিও আমার অবস্থান থেকে আদিবাসী জনগোষ্ঠির উন্নয়নে অর্থ সংগ্রহের জন্য আমার আঁকা কার্টুনের ৩৪ টি কপি দান করেছি। প্রতিটি কার্টুন ৫০০ ক্রোনার বা প্রায় পাঁচ হাজার টাকা হিসেবে বিক্রি হয়েছে।
উক্ত অনুষ্ঠানে স্থানীয় মেয়র সহ গন্য-মান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। সকলেই নিজ নিজ জায়গা থেকে বাংলাদেশের আদিবাসী জনগোষ্ঠির উন্নয়নে অর্থ সংরক্ষণে অবদান রেখেছেন।


Comments

Popular posts from this blog

The story of a Bengali

17 awesome quotes that help me to stay motivated

ফেসবুক ভেরিফাইড একাউন্ট